মরদেহ উদ্ধার ২২ বছর পর পর্বতারোহীর ‘অক্ষত’ পেরুর পর্বতে

পর্বত আরোহণের সময় নানা ধরনের প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের শিকার হয়ে থাকেন পর্বতারোহীরা, অনেকে হারান প্রাণ। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এদের মৃতদেহ ধ্বংসস্তূপ বা বরফখণ্ডের নিচে চাপা পড়ায় আর খুঁজে পাওয়া যায় না। তবে নিখোঁজের দীর্ঘ ২২ বছর পর পেরুর একটি পর্বত থেকে মার্কিন এক পর্বতারোহীর মরদেহ ‘অক্ষত’ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে

বার্তা সংস্থা এএফপির বরাত দিয়ে এনডিটিভি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, দুই দশকেরও বেশি সময় আগে ২০০২ সালে পেরুর বরফে আবৃত হুয়াসকারানের ২২ হাজার ফুট উচ্চতার পর্বতে আরোহণ করতে যান মার্কিন পর্বতারোহী উইলিয়াম স্টাম্পফল (৫৯)। এ সময় তিনি এবং তার দলটি তুষারঝড়ের কবলে পড়েন।পরে স্টাম্পফলকে খুঁজে পাওয়া না গেলে, তার সন্ধানে অভিযান চালানো হয়। কিন্তু তাতে কোনো লাভ হয়নি।

অবশেষে সোমবার (৮ জুলাই) তার মরদেহ ‘অক্ষত’ অবস্থায় উদ্ধার করেছে পেরুর পুলিশ। তারা জানায়, ‘স্টাম্পফল এতদিন তুষারের নিচে চাপা পড়ে ছিলেন। জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে আন্দেসের কর্দিলেরা ব্লাঙ্কা রেঞ্জে বরফ গলে যাওয়ায় তার মরদেহটি দৃশ্যমান হয়েছে।’

পুলিশের দেয়া ছবিতে দেখা গেছে, বরফের মধ্যে থাকার কারণে স্টাম্পফলের মরদেহ, পরনের পোশাক, সাজসজ্জা, পায়ের জুতা বেশ ভালোভাবেই সুরক্ষিত আছে। এমনকি তার সঙ্গে পাসপোর্টও পাওয়া গেছে। এ কারণে সহজেই তার পরিচয় শনাক্ত করা গেছে।

পেরুর উত্তর-পূর্বাঞ্চলে হুয়াসকারান ও কাশানের মতো বরফাবৃত পর্বতগুলোর অবস্থান। বিশ্বের পর্বতারোহীদের কাছে এ পর্বতগুলো বেশ আকর্ষণীয়।

See also  ইন্টারনেট ব্যবহারে কি মানুষ বেশি ভালো থাকে? থাকে—শুধু অল্পবয়সি মেয়েরা বাদে: গবেষণা
Skip to toolbar